বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৫:৩২ অপরাহ্ন

শ্রমিকদের উপর বোমা হামলার ঘটনায় সংবাদ সন্মেলন করেছে ৮৯১ ও ৯২৫ হ্যান্ডলিং শ্রমিক সংগঠন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৩০ মার্চ, ২০২২
  • ১০০ Time View
মোঃ সাহিদুল ইসলাম শাহীন,বেনাপোল(যশোর): গত ২৮ মার্চ সোমবার বেনাপোল স্থলবন্দরে শ্রমিকদের উপর বোমা হামলার ঘটনায় হুকুমদাতা বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন ও তার পোষ্য বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত ১৩ মামলার আসামী বেনাপোলের শীর্ষ সন্ত্রাসী রাশেদ আলী’র বিরুদ্ধে যৌথভাবে ” সংবাদ সন্মেলন” করেছে বেনাপোল স্থলবন্দরের হ্যান্ডলিং শ্রমিক সংগঠন রেজিঃ নং- ৯২৫ ও রেজিঃ নং- ৮৯১।
বেনাপোল স্থলবন্দর সংলগ্ন হ্যান্ডলিং শ্রমিক সংগঠন ৮৯১ এর অফিস কার্যালয়ে বেলা ১২ টার দিকে এই “সংবাদ সন্মেলন” অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শুনান এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন ৯২৫ শ্রমিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক-অহিদুজ্জামান অহিদ। সংবাদ সন্মেলনে বলা হয়- গত ২৮ মার্চ সোমবার সকাল ১০টার দিকে হুকুমদাতা বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন এর পোষ্য সন্ত্রাসী একাধিক মামলার আসামী রাশেদ আলী তার  দলবল নিয়ে বেনাপোল স্থলবন্দরের অভ্যন্তরে কর্মরত শ্রমিকদের লক্ষ্য করে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ টি হাতবোমা(ককটেল) নিক্ষেপ করে,এতে ২০-২৫ জন শ্রমিক গুরুতর আহত এবং অনেকে রক্তাক্ত জখম হন, এতেও তারা ক্ষান্ত হয়নি,   তাদের হাতে থাকা ধারালো রামদা দিয়ে নিরীহ শ্রমিকদেরকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে সন্ত্রাসী রাশেদ গং পালিয়ে যায়, আহত শ্রমিকদেরকে যশোরের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। শ্রমিক নেতা অহিদুজ্জামান বলেন, নিরীহ শ্রমিকদের উপর এমন অমানবিক বর্বরোচিত ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় আমরা হতবাক হয়েছি,এ ঘটনায় হুকুমদাতা মেয়র লিটন এবং রাশেদ গংদের বিরুদ্ধে বন্দরের শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে আজকের এই “সংবাদ সন্মেলন”। বর্বরোচিত এ হামলার বিরুদ্ধে আমরা ক্ষোভ, নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাই।
সাংবাদিকদের উপর প্রশ্ন রেখে শ্রমিক নেতা অহিদুজ্জামান বলেন, সরকারের রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে বেনাপোল স্থলবন্দর কে অর্থনৈতিক ভাবে মূল কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে ধরা হয়ে থাকে, বন্দরের শত শত শ্রমিকের রক্ত এবং শরীরের ঘামে সেই অর্থনৈতিক চাকাকে সচল করে রাখে এই নিরীহ শ্রমিকরা। দেশকে উন্নয়নের ধারায় এগিয়ে নিতে শ্রমিক বান্ধব আ.লীগ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন উন্নয়নের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন,ঠিক তখনই জামাত-বিএনপি’র প্রেতাত্মা মেয়র লিটন তার পোষ্য রাশেদ গংদের দিয়ে এই বেনাপোল বন্দরের অভ্যন্তরে একের পর এক বোমা বিস্ফোরণ এবং নিরীহ শ্রমিকদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালাচ্ছে, কেন এবং কি কারনে এই হামলা? জাতি আজ জানতে চাই।
তিনি আরও বলেন,একাধিক মামলার আসামী রাশেদ গং শান্ত বেনাপোল বন্দরকে অশান্ত করে রেখেছে,সাধারন ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে, পৌর মেয়র সন্ত্রাসীদের গডফাদার আশরাফুল আলম লিটন ও রাশেদ গংদের আইনের আওতায় এনে বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করানোর জন্য প্রশাসনের প্রতি সুষ্ঠ বিচারের দাবী  জানিয়েছেন।
 তিনি সংবাদ সন্মেলনে ধন্যবাদ জানিয়েছেন, ৮৫,যশোর-১ শার্শা আসনের শ্রমিক বান্ধব  এমপি শেখ আফিল উদ্দিন কে। যিনি বোমা বিস্ফোরনে আহতদের খোজ খবর নিয়ে চিকিৎসার সামগ্রিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বন্দর এবং শ্রমিকদের নিরাপত্তা দিতে বন্দরে ছুটে এসেছিলেন শার্শা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা-মীর আলিফ রেজা, মামুন কবির তালুকদার, স্থলবন্দর উপ-পরিচালক(ট্রাফিক), সহকারী কমিশনার(ভূমি) রাসনা শারমিন মিথি এবং
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় আগত পুলিশের যশোর জেলা এডিশনাল এসপি সাইফুল ইসলাম,ডিবি পুলিশ(যশোর) ওসি রুপন কুমার সরকার,পিপিএম,এসআই শাহিনুর রহমান,এসআই শহিদুর রহমান,ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সুমন ভক্ত,শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মামুন খান,ওসি(তদন্ত) মোঃ তরিকুল ইসলাম,বেনাপোল পোর্টথানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ কামাল হোসেন ভূ্ঁইয়া,তদন্ত(ওসি) মোঃ গোলাম রসুল,শার্শা উপজেলার আনসার কমান্ডার-আব্দুল্লাহ আল রাসেল,বেনাপোল ফায়ার সার্ভিস ইনচার্জ-রতন কুমার দেবনাথ,বন্দর আনসার প্লাটুন কমান্ডার-আজাদ এবং
শ্রমিকদের প্রতি সহানুভূতি জানাতে পৌর এবং শার্শা আ.লীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-বেনাপোল পৌর আ.লীগ সভাপতি-এনামুল হক মুকুল,সাধারণ সম্পাদক-মোঃ নাসির উদ্দিন, বড়আঁচড়া আ.লীগ সভাপতি-আব্দুল হামিদ,পৌর যুবলীগ আহবায়ক-কমিশনার আহাদুজ্জামান বকুল,যুগ্ম-আহবায়ক-জসিম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি-জুলফিকার আলী মন্টু,সাধারণ সম্পাদক-মোঃ কামাল হোসেন, যশোর জেলা শাখার  যুব মহিলালীগ সাধারণ সম্পাদক-শামীমা সালমা আলম,পৌর  যুব মহিলা লীগ নেতৃ-জান্নাতুল ফেরদৌস রোজী, শার্শা ছাত্রলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক-ইকবাল হোসেন রাসেল,পৌর ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি- আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক-তৌহিদুল ইসলাম, দিঘীরপাড় আ.লীগ নেতা-মাইদুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা-নাজিম উদ্দিন রাব্বি সহ আ.লীগ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দের প্রতি।
উল্লেখ্য, বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় হুকুমদাতা মেয়র লিটন সহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্টথানায় বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন রেজি নং- ৯২৫ শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি-রাজু আহম্মেদ এবং একই অভিযোগ এনে মেয়র লিটন সহ ৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন রেজিঃ নং- ৯২৫ শ্রমিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক- অহিদুজ্জামান অহিদ।
সবশেষে সাংবাদিকদের সহযোগীতা কামনা করে সংবাদ সন্মেলনের সমাপ্তি টানেন শ্রমিক নেতা অহিদুজ্জামান অহিদ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 SN BanglaNews
কারিগরি সহযোগিতায়: