মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৮:১৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ঝিনাইদহে দিনব্যাপী কৃষি উদ্যোক্তা মেলা ও সম্মেলন মহেশপুরে মানসিক প্রতিবন্ধী নারীকে নির্যাতনের ঘটনায় আটক-৫ ঝিনাইদহে ১২ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক দাপ্তরিক কাজে দক্ষ ও স্মার্ট প্রশাসন গড়ে তুলতে হবে -পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ঝিকরগাছা রিপোর্টার্স ক্লাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও বনভোজন শৈলকুপায় গোয়াল ঘরে অগ্নিকান্ডে পুড়ে মারা গেছে ২টি গরু ঝিনাইদহ সীমান্ত থেকে ৫টি স্বর্ণের বার উদ্ধার শৈলকুপায় ২ আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা ঝিনাইদহে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি এম রায়হান, সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সতর্কতা জারি করা বিজ্ঞপ্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি।
  • Update Time : বুধবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৩৫ Time View

ভূমি মন্ত্রণালয়ের সতর্কতা জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে যা বলা হয়েছে  সম্প্রতি অনলাইনে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে কিছু ব্যক্তি নামজারি প্রক্রিয়া বাতিল হয়েছে বলে বিভিন্ন তথ্য, ভিডিও কনটেন্ট তৈরি ও শেয়ার দিচ্ছেন। এতে অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন। প্রকৃত তথ্য হচ্ছে, বাংলাদেশের বর্তমান ভূমি ব্যবস্থাপনায় নামজারি প্রক্রিয়া বাতিলের কোনো সুযোগ নেই। আজ বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমনটা জানিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়।


সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন, ১৯৫০-এর ১৪৩ (গ) ধারায় খতিয়ান সংশোধনের পদ্ধতি সম্পর্কে বলা আছে, ধারা ৮৯-এর অধীন নোটিশ প্রাপ্তির পর, রাজস্ব কর্মকর্তা খতিয়ানে নামজারির জন্য একটি নথি খুলবে এবং নামজারির জন্য জোতের সহ-অংশীদাররা প্রতি নোটিশ জারি করবেন। প্রজাস্বত্ব বিধিমালা ১৯৫৫-এর ৮, ৯ এবং ২৩ ধারাতেও নামজারির কথা বলা হয়েছে। সরকার জনগণের সুবিধার্থে ও ভোগান্তি কমাতে নামজারি প্রক্রিয়া সহজ করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। জমি ক্রয় কিংবা অন্য কোনোভাবে মালিকানা পরিবর্তন পরবর্তী ভূমি নিবন্ধনের পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে নামজারি সম্পন্ন করার ব্যবস্থা করা হয়েছে ‘রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ’-এর মাধ্যমে।

এতে আরো বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী গত বছরের ২৯ মার্চ রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ কার্যক্রম উদ্বোধনের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় নামজারি প্রক্রিয়া কার্যক্রম শুরু করেন। বর্তমানে দেশের ১৭টি উপজেলায় এই কার্যক্রম চলমান। শিগগিরই দেশব্যাপী বাস্তবায়ন করা হবে রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ।

কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কোনো বৈধ পন্থায় ভূমি/জমির মালিকানা অর্জন করার পর তা নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) করে সরকারি রেকর্ড সংশোধন করে তাঁর নামে রেকর্ড আপটুডেট (হালনাগাদ) করাকেই নামজারি বলা হয়। কোনো ব্যক্তির নামজারি সম্পন্ন হলে তাঁকে একটি খতিয়ান দেওয়া হয় যেখানে তাঁর অর্জিত জমির একটি সংক্ষিপ্ত হিসাব বিবরণী উল্লেখ থাকে। দুটি জরিপ কার্যক্রমের মধ্যবর্তী সময়ে রেকর্ড সংশোধন করা হয় নামজারির মাধ্যমে। জমির মালিকানা প্রমাণের অন্যতম প্রধান শর্ত সরকারি রেকর্ডে/খতিয়ানে নাম থাকা।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023 SN BanglaNews
কারিগরি সহযোগিতায়: