শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০১:২৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
ঝিনাইদহে ২৭ মণ ওজনের দুদরাজের দাম হাকা হচ্ছে ১০ লাখ টাকা ঝিনাইদহের সংসদ আনার হত্যার চাঞ্চল্যকর তথ্য, ছবি ও ভিডিও প্রকাশ ঝিনাইদহে ট্রাক চাপায় এক যুবকের মৃত্যু ঝিনাইদহে টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত খুলনা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার পেলেন বেনাপোল পোর্ট থানার তিন অফিসার দির্ঘ ৯ বছরেও পূর্ণতা পায়নি ঝিনাইদহ সরকারি বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধি স্কুলটি ঝিকরগাছায় ধর্ষিতা কিশোরীর ইজ্জতের দাম নির্ধারণ হলো ৩০ হাজার টাকা! দেশের দক্ষিনাঞ্চলে রেণু পোনা উৎপাদনে এক সমৃদ্ধ ভান্ডার ঝিনাইদহের বলুহর কেন্দ্রীয় মৎস্য হ্যাচারি ঝিনাইদহে প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষায় অর্ন্তভুক্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে অ্যাডভোকেসি সভা ঝিনাইদহের মহেশপুরে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

বিদেশে লোক পাঠানোর নামে প্রতারণা, থানায় অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার :
  • Update Time : সোমবার, ১৩ মে, ২০২৪
  • ২০ Time View

কিরগিজস্তানে লোক পাঠানোর নামে প্রতারণা, তাদের ভিসা এক্সটেনশন না করা, সময়মত ফ্লাইট না দেওয়া, টাকা নিয়েও লোক না পাঠানো, পাওনা টাকা চাওয়াই হুমকি দেয়া সহ বিভিন্ন কারণে মোখলেসুর রহমান নামের একজন ট্রাভেল এজেন্সির মালিকের নামে পল্টন মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মোঃ জহির উদ্দিন নামের একজন। মোকলেসুর রহমান ছাড়াও রাখী রানী দাস ও মোঃ শহিদ নামে আরও দুজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, রাখী রানী দাস মোখলেসুর রহমান এর ব্যবসায়ী অংশীদার এবং শহিদ তার আপন বড়ভাই। অভিযুক্তরা পরস্পর যোগসাজশে বিদেশে লোক পাঠানোর নামে বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ নিয়ে তাদের সাথে ছলচাতুরী করে প্রতারণা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় মোঃ জহির উদ্দিন ৮ জন ব্যক্তিকে কিরগিজস্তানে পাঠানোর জন্য মোখলেসুর রহমানের ঢাকা পুরানো পল্টন এর ৭০/এফ ভবনের ৬ষ্ঠ তলার অফিসে গিয়ে ২০ লক্ষ টাকা প্রদান করেন। এই ৮জন ব্যক্তি কিরগিজস্তানে পৌছানোর পরে তাদের ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর কথা থাকলেও মোকলেসুর রহমান সেটা না করায় জহির উদ্দিন যোগাযোগ করলে তিনি তাকে ৯ লক্ষ ২১ হাজার টাকা ফেরত দিবেন বলে লিখিত চুক্তি করেন। কিন্তু অদ্যবধি তিনি একটি টাকাও দেননি। টাকা চাইতে গেলে তারা বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি এবং প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

এদিকে কিরগিজস্তান প্রবাসী ট্রাভেলস ব্যবসায়ী মোঃ ইমরান কাজি বলেন, মোখলেসুর রহমানকে আমি মোট ৬০ টি ভিসা দিয়েছি তার মধ্যে ৪০ টি একবার করে এবং ২০ টি ভিসা এক্সটেনশন সহ মোট ৩৬০০০ ডলার যা বাংলাদেশী টাকায় হয় ৪৩ লক্ষ ৯২ হাজার টাকা কিন্তু সে আমাকে দিয়েছে ৪১ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা এবং ১৪ জন ফ্লাইট দিয়েছে তাদের ভিসা এক্সটেনশন করা বাবদ কোনো টাকা দেয় নাই, যার কারণে তারা ঠিক মতো চলাফেরা করতে পারে না এবং কাজ করলেও মালিকেরা সঠিক ভাবে বেতন দিচ্ছে না। এখন মোখলেসুর রহমানের কাছে টাকা চাইলে তিনি আমাকে এবং দেশে থাকা আমার পরিবারকে বিভিন্ন সময় হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এ বিষয়ে জানতে মোখলেসুর রহমানের ব্যক্তিগত মোবাইল নংএ কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023 SN BanglaNews
কারিগরি সহযোগিতায়: